BusinessTech

প্রথম বারের মতো 5G দেখতে পেলো বাংলাদেশ

প্রতিনিয়ত নতুন নতুন প্রযুক্তি আবিষ্কার হচ্ছে যেগুলো দীর্ঘ গবেষণার পর সাধারণ গ্রাহকদের ব্যবহার উপযোগী করা হচ্ছে।

দুনিয়ার প্রতিটি জিনিসের মতই মোবাইল নেটওয়ার্ক প্রযুক্তিরও বিবর্তন ঘটছে। এদের মধ্যে বর্তমানে আলোচিত হচ্ছে ৫জি বা 5G নেটওয়ার্ক।

১২ ডিসেম্বর ২০২১ আরো একটি ইতিহাস রচনা করল বাংলাদেশ। এইদিন বাংলাদেশে প্রথমবারের মত ৫জি মোবাইল নেটওয়ার্ক চালু করে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ সংস্থা BTRC। পরীক্ষামূলকভাবে দেশের ৬টি স্থানে ৫জি চালু করেছে BTRC।

চলুন জেনে নিই এই সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য।

কোথায় পাওয়া যাবে ৫জি নেটওয়ার্ক?

প্রথমদিকে পরীক্ষামূলক টেলিটক ৫জি পাওয়া যাবে নিম্নোক্ত ৬টি স্থনে।

  1. সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধ
  2. বাংলাদেশ সচিবালয়
  3. সংসদ ভবন এলাকা
  4. বঙ্গবন্ধুর জন্মস্থান গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া
  5. ধানমণ্ডির ৩২ নম্বর
  6. প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় 

আশা করা যাচ্ছে, খুব দ্রুত রাজধানী ঢাকার ২০০ -২৫০ স্থানকে ৫জি নেটওয়ার্কের আওতায় আনবে BTRC।

এই ৫জি যাত্রায় BTRC এর সাথে আছে টেলিটক,হুয়াওয়ে এবং নকিয়া।

অন্যান্য অপারেটরে 5G কবে আসবে?

BTRC যেহেতু পরীক্ষামূলক ভাবে টেলিটককে সাথে নিয়ে ৫জি চালু করেছে সেহেতু অন্যান্য অপারেটর তথা বাণিজ্যিকভাবে ব্যাপক পরিসরে ৫জি চালু করার আগে তরঙ্গ নিলাম হবে।

আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশন সম্পর্কে অজানা কিছু তথ্য

৫জি ফ্রিকোয়েন্সি নিলাম হওয়ার পর সকল অপারেটর তরঙ্গ বরাদ্দ নিয়ে ফাইভজি চালু করবে। ২০২২ সালের মার্চ মাসে এই নিলাম হবে বলে জানা গেছে। সুতরাং আশা করা যায় ২০২২ সালের মার্চের মধ্যে অন্যান্য অপারেটরেও ৫জি চালু হতে পারে।

টেলিটক ৫জি কীভাবে ব্যবহার করব?

টেলিটক ৫জি ব্যবহার করার জন্য আপনার টেলিটক সিম যুক্ত একটি ৫জি সমর্থিত মোবাইল ফোন দরকার হবে। সেই সাথে ৫জি নেটওয়ার্ক আছে এমন একটি স্থানে আপনার অবস্থান করতে হবে। টেলিটকের যে ৩-পার্টে বিভক্ত সবুজ সিমগুলো রয়েছে (ন্যানো সিম) সেগুলোতে ৫জি সাপোর্ট করবে বলে টেলিটক কাস্টমার কেয়ার থেকে জানা গেছে। আশা করা যায় ৪জি সিমগুলোতে ৫জি চলবে।

মোবাইল ফোনের নেটওয়ার্ক সেটিংস থেকে নিশ্চিত হয়ে নিতে হবে যে এটি ৫জি নেটওয়ার্ক গ্রহণ করছে। আপনার ফোনের নেটওয়ার্ক ইনডিকেটর খেয়াল করলে সেখানে 5G লেখা দেখতে পাবেন। ৫জি নেটওয়ার্ক পেলে এরপর আপনি আপনার ফোনে ৫জির গতি উপভোগ করতে পারবেন। আপনার বিদ্যমান টেলিটক ডাটা প্যাক ৫জি নেটওয়ার্কেও কাজ করবে।

৫জি এর সুবিধা কি?

বর্তমানে ৫জি হচ্ছে সবচেয়ে দ্রুতগতি সম্পন্ন মোবাইল ফোন নেটওয়ার্ক। ৫জি নেটওয়ার্কে ইন্টারনেট স্পিড সেকেন্ডে ২০ গিগাবিট পর্যন্ত হতে পারে। তবে এই গতি অনেক বিষয়ের উপর নির্ভর করে। সচরাচর ৫জি নেটের গতি ১.৫জিপিপিএস দেখা গেছে। আর গড়ে এই গতি হতে পারে ১০০ এমবিপিএসের বেশি।

সহজভাবে বলতে গেলে ৪জি নেটওয়ার্কের চেয়ে ৫জি নেটওয়ার্কের স্পিড কমপক্ষে ১০গুণ বেশি হবে। ২ ঘণ্টার একটি ভাল মানের ভিডিও ডাউনলোড করতে আপনার হয়ত ১০ সেকেন্ড সময় লাগবে।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button